পদ্মা সেতুর রেলপথ বসানোর কাজ ডিসেম্বরে: রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন

দিনকাল বাংলাদেশ
রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন গতকাল পদ্মা সেতু দেখতে গিয়েছিলেন সে সময় সেতু প্রকল্পটি দেখার সময় উপস্থিত ছিলেন রেল সচিব সেলিম রেজা, সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প পরিচালক মো. আফজাল হোসেন, রেলওয়ে মহাপরিচালক ধীরেন্দ্রনাথ মজুমদার, পদ্মা প্রমুখ।
পদ্মা সেতুর নিচে রেলপথ বসানোর কাজ আগামী ডিসেম্বরে শুরু হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। মন্ত্রী বলেন, আমরা সেতু কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয় করার চেষ্টা করছি। মন্ত্রী বলেন, এ বছরের ডিসেম্বরে দোতলা পদ্মা সেতুর নিচে রেলপথ বসানোর কাজ শুরু করতে না পারলে সড়ক পরিবহনের সঙ্গে ২০২২-এর জুনে ট্রেন যোগাযোগ চালু সম্ভব হবে না। যদি কোনো কারণে আগামী জুন মাসে পদ্মা সেতু দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু করা সম্ভব না হয়, তাহলে আগামী বছরের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা রেলপথ চালু করার চিন্তা-ভাবনা রয়েছে। মঙ্গলবার পদ্মা রেল সংযোগ প্রকল্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।
প্রকল্প কর্মকর্তারা জানান, সড়কের কাজে প্রাধান্য থাকায় পদ্মা সেতুতে ইউটিলিটি সার্ভিস তথা বিদ্যুৎ, গ্যাস লাইন ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ করার পরই রেললাইনের নির্মাণের কাজ শুরু করতে হবে। সড়ক বিভাগের এনওসি পাওয়ার পরই রেললাইন নির্মাণের কাজ শুরু করা যাবে।
সেতু কর্তৃপক্ষ এখন সেখানে গ্যাস পাইপ লাইনের কাজ করছে। এসব কাজ শেষ করে আগামী বছরের মার্চ মাসে সেতুতে রেললাইন বসানোর জন্য রেল কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করতে পারে। জানা গেছে, পদ্মা সেতুর রেললাইন বসাতে প্রায় ছয় মাস সময় লাগবে।
ইতিমধ্যে মাওয়া-ভাঙ্গা অংশের কাজ ৬৯ শতাংশ শেষ হয়েছে। এ ছাড়া ঢাকা-মাওয়া অংশে ৪০,৫০ শতাংশ ও ভাঙ্গা থেকে যশোর সেকশনে রেল সংযোগের কাজ ৩২ শতাংশ শেষ হয়েছে। এই বছরের আগস্ট পর্যন্ত সেতুতে রেল সংযোগ প্রকল্পের মোট অগ্রগতি ৪৩,৫০ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.