২০২১-২২ অর্থ বছরে এখনও রিটার্ন দেননি ৭৯ শতাংশ করদাতা!

বাণিজ্য বাংলাদেশ

৫মিশালি বিডি ওয়েব ডেস্কঃ দেশে ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন করা করদাতা ৭০ লাখের বেশি। অথচ ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ৫৫ লাখ ৫০ হাজার ৪৬৯ করদাতা রিটার্ন দাখিল করেননি। সে হিসাবে প্রায় এখনও রিটার্ন দেননি ৭৯ শতাংশ করদাতা।

আয়কর অধ্যাদেশ অনুযায়ী রিটার্ন দাখিল করার নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেছে। যদিও বিশেষ বিবেচনায় ব্যক্তি শ্রেণির আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তারপরও এখনো ৭৯ শতাংশ করদাতা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেননি।

আরও পড়ুনঃ সিলেটের কানাইঘাটে বিয়ের সেন্টার থেকে দুই বাবুর্চির লাশ উদ্ধার! 

ফলে মাত্র প্রায় ২১ শতাংশ টিআইএনধারী করদাতা রিটার্ন দাখিল করেছেন বলে জানা গেছে। এনবিআর থেকে পাওয়া হিসাব অনুযায়ী, গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত রিটার্ন দাখিল করেছেন ১৪ লাখ ৪৯ হাজার ৫৩১ জন করদাতা। এছাড়া সময় বৃদ্ধি আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৪৮৬টি। যার বিপরীতে আয়কর এসেছে ১ হাজার ২৫০ কোটি ২৬ লাখ টাকা।

যদিও সময় বৃদ্ধির আবেদন ও রিটার্ন দাখিলের সংখ্যা যোগ করলেও ১৬ লাখ ৬ হাজার ১০৭ জন করদাতা রিটার্ন দাখিল করেছেন বা রিটার্ন দাখিলে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। অর্থাৎ বাকি ৫৩ লাখ ৯৪ হাজার ৯৮৩ করদাতা হিসাবের বাইরে রয়েছেন।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে এনবিআর সদস্য (করনীতি) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ানো হয়েছে। চূড়ান্ত হিসাব পাওয়া না পর্যন্ত কত শতাংশ করদাতা রিটার্ন দাখিল করেছেন কিংবা করেননি সেটা বলা যাবে না। আশা করছি করদাতাদের রিটার্ন দাখিলের সংখ্যা প্রত্যাশা অনুযায়ী বাড়বে।

এনবিআর থেকে পাওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশের ৩১টি কর অঞ্চলের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রিটার্ন জমা পড়েছে খুলনার কর অঞ্চলে। এখানে ১ লাখ ৩১ হাজার ৪৮৭ জন করদাতা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেছেন, যেখানে কর আহরণ হয়েছে ৬৪ কোটি ২৭ লাখ টাকা। অন্যদিকে, সবচেয়ে কম ২৩৩টি রিটার্ন দাখিল হয়েছে ঢাকার বৃহৎ করদাতা ইউনিটে। যার বিপরীতে কর এসেছে ১০৫ কোটি ৫ লাখ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.