বানরের দেহে পরীক্ষায় ৯৫ শতাংশ সফলতার দাবি বঙ্গভ্যাক্স টিকার!

আন্তর্জাতিক বাংলাদেশ স্বাস্থ্য

বাংলাদেশী ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোব ফার্মাসিটিক্যালসের গ্লোব বায়োটেকের করোনা টিকা বানরের দেহে পরীক্ষায় ৯৫ শতাংশ সফলতা মেলার তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক (কোয়ালিটি অ্যান্ড রেগুলেটরি) ড. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন গতকাল শুক্রবার বলেন,  ‘আমাদের টিকার বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, এর একটি ডোজেই এনিম্যাল ট্রায়ালে কার্যকর অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে। আমরা আশা করছি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালেও অনুরূপ ফল পাওয়া যাবে। এটি +৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় এক মাস এবং -২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ছয় মাস পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যাবে।’

 

তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভেরিয়েন্টসহ ১১টি ভেরিয়েন্ট বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় সক্রিয়। এই ১১টি ভেরিয়েন্টের সিকোয়েন্স অ্যানালাইজ করে দেখা গেছে, সব ভেরিয়েন্টের ক্ষেত্রেই বঙ্গভ্যাক্স কার্যকর। আমরা খুবই আত্মবিশ্বাসী যে এই টিকা যদি বাজারে নিয়ে আসতে পারি, তাহলে সারা বিশ্বে ডেল্টা ধরনসহ করোনার যে মহামারি চলছে তা থেকে একমাত্র বঙ্গভ্যাক্সই পরিত্রাণ দিতে পারবে।’

 

২০২০ সালের ২ জুলাই গ্লোব বায়োটেক ‘বঙ্গভ্যাক্স’ টিকা তৈরির কাজ শুরুর কথা জানায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গত বছরের ১৫ অক্টোবর তাদের উদ্ভাবিত এমআরএনএ ভ্যাকসিনকে কভিড-১৯ টিকার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে।

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, ‘এ মাসেই আমরা বানরের দেহে পরীক্ষার ফলাফল বিএমআরসিতে জমা দেব। এরপর সরকারের অনুমতি পেলে আগামী মাস থেকেই মানুষের দেহে এই টিকার ট্রায়াল শুরু করতে পারব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.