true caller

অপরিচিত ব্যক্তির কল পেলে পরিচয় বের করার উপায়

আন্তর্জাতিক তথ্যপ্রযুক্তি
অজ্ঞাত বা অপরিচিত নাম্বার থেকে প্রতিদিনই আপনার নাম্বারে কয়টা ফোন কল আসে? অনেকে অপরিচিত নাম্বার দেখলে আবার অস্বস্তি বোধ করেন, রিসিভও করেন না; কিন্তু আবার এও ভাবেন, ‘দরকারি কোনো রকম কল নয় তো!’ তাছাড়া আজকাল বিরক্তিকর স্প্যাম এবং রোবোকল বা স্বয়ংক্রিয় প্রমোশনাল কলের সংখ্যাও দিন দিন বাড়ছে।

 

 

এমন পরিস্থিতির কিছুটা হলেও সংশয়ের অবসান হবে, যদি ইনকামিং কলের পেছনের ব্যক্তির ব্যাপারে অন্তত কিছুটা আন্দাজ করা যায়! চাইলে এ অবস্থা থেকে অবশ্যই উত্তরণ পাওয়া যাবে ওয়েব এবং অ্যাপ সেবা ব্যবহার করে। এখানে সর্বমোট ৪টি উপায় তুলে ধরা হলো–

 

১. অজ্ঞাত কারো সম্ভাব্য পরিচয় জানার খুবই দুর্দান্ত একটি সাইট FamilyTreeNow.com । অনলাইনে বিভিন্ন সূত্র থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তথ্যগুলো সংগ্রহ করে ব্যক্তি ভেদে একটি আনুমানিক ডেটাবেজ সংরক্ষিত হয় সাইটটিতে। নাম্বার দিয়ে সার্চ করলেই তিনি কোথায় কোথায় অবস্থান করেছেন বা বসবাস কোথায়, কে কে তার আত্মীয়, বয়সসীমা কত এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত বিবরণ এই সাইটে পাওয়া যাবে। তবে এই পদ্ধতিটি যেসবসময় সব দেশে সবার ক্ষেত্রে কাজে আসবে, এমনটি ভাবার কোনো অবকাশ নেই। কারণ শুধু যেসব ক্ষেত্রে স্বয়ংক্রিয় তথ্য সংগ্রহ করার সুযোগ আছে, সেসব ক্ষেত্রেই এটি থেকেই কার্যকর ফল পাওয়া যাবে।

 

 

তবে মজার একটা ব্যাপার হচ্ছে, আপনি হয়তো কৌতুহল বশত নিজের নাম্বার দিয়ে খোঁজ করতে গিয়ে নিজেরই অনেকগুলো তথ্য পেয়ে যেতে পারেন। এ অবস্থা থেকে রেহাই পেতে হলে নিজের অজান্তেই আপনার তথ্য রেকর্ড হয়েছে কিনা এটা জেনে মুছে ফেলুন।

 

 

২. স্পাই ডায়ালার ZLOOKUP.comUSPhonebook.com-এ  প্রায় কয়েকশ’ কোটি মানুষের বেসিক তথ্য সংরক্ষিত করা আছে। অজ্ঞাত ব্যক্তির ফোন নম্বরসহ, নাম, ঠিকানা অথবা ই-মেইল দিয়ে অনুসন্ধান করলে হয়তো তার তথ্য পেয়েও যেতে পারেন!

 

 

৩. প্রচলিত ও সহজ এবং বহুল ব্যবহৃত একটি উপায় হচ্ছে গুগল সার্চ! গুগলে গিয়ে নাম্বারটি লিখে সার্চ দিয়ে দিন। যদি নাম্বারটি কোনো পরিচিত ব্যক্তিত্ব অথবা কোনো প্রতিষ্ঠানের হয়, তাহলে নিশ্বয়ই ওয়েবসাইট এবং অন্যান্য জায়গায় ফোন নম্বরটি ব্যবহার হতেও পারে। এর সূত্র ধরেটা আগালেই কল দাতার সঠিক তথ্য পাওয়া অনেকটা সহজ হবে।

 

 

৪. সোশ্যাল মিডিয়ায় খোজঁ করা। প্রায় সবাই সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে কমবেশি যুক্ত। সেখানে নাম্বার লিখে সার্চ দিলেই কোনো আইডিতে যদি এই নাম্বার যুক্ত থাকলে মুহূর্তেই তার তথ্য পেয়ে যাবেন। একই পদ্ধতি আবার তাৎক্ষণিক বার্তা চালাচালির অ্যাপের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

 

 

অনেকে এই কাজে কিছু থার্টপার্টি অ্যাপ ব্যবহার করেন। তবে সেসব অ্যাপের মূল সমস্যা হলো সেগুলো ব্যবহার করতে গেলে তারা আপনার নাম্বার ও কন্টাক্ট লিস্টও সংগ্রহ করে।  অ্যাপগুলোর মূল সম্বল মূলত এটাই। আপনার তথ্য নিয়ে ঠিকই আরেক জনের কাজে আসবে আবার সেই সাথে আরেক জনের তথ্য দিয়ে আপনার প্রয়োজন মেটাবে! তাই হচ্ছে সাবধান!

Leave a Reply

Your email address will not be published.